৩০০ নারীকে ধর্ষণ !

৩০০ নারীকে ধর্ষণ

৩০০ নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে এমন খবর শুনে হয়তো ভয়ে কেপে উঠতে পারেন কিন্তু এমন ঘটনাই ঘটেছে আফ্রিকায়। নারীদের ওপর যৌন নির্যাতন যেনো দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে কিন্তু সেদিকে যেনো কারো কোনো খেয়াল নেই। জানা গেছে এই ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসেই নাকি আফ্রিকায় ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৩০০ নারী। চলুন আরো বিস্তারিত যেনে নেই।

৩০০ নারীকে ধর্ষণ !

৩০০ নারীকে ধর্ষণ
৩০০ নারীকে ধর্ষণ

জানা গেছে মিলিশিয় সেনারা বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রায় ৩০০ র মতো মেয়েকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে আর সবাইকে ধর্ষণের উদ্দেশ্যেই অপহরণ করা হয়েছিলো।

এতো ছিলো শুধু ফেব্রুয়ারি মাসের ঘটনা।

মেডিসিনস স্যানস ফ্রন্টিয়ারস স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি আফ্রিকার উত্তর পশ্চিম দিকের গ্রামগুলোতে গিয়েছিলো নারীদের চিকিৎসা করতে। আর তখনই তারা জানতে পারে মিলিশিয় যোদ্ধাদের এই নির্মম অত্যাচারের কথা।

ধর্ষিতা মেয়েদের চিকিৎসা যে হাসপাতালে হচ্ছে সেখানকার এক ডাক্তার এর কাছে জানা গেছে যে অনেক মেয়ে ভয় পেয়ে প্যারালাইজড হয়ে গেছে। আবার অনেক মেয়ের শরীরে পাওয়া গেছে ব্লেড দিয়ে কাটা আঘাতের মতো চিহ্ন যা ছিলো খুব ভয়াবহ।

অনেক মেয়েরাই তাদের চিকিৎসাটা ও করাতে চাচ্ছিলো না কারন তারা ভয়ে ছিলো যে যদি আবার চলে আসে মিলিশিয় সেনারা!

আজকের খবর ছিলো আফ্রিকার মেয়েদের ধর্ষিত হবার কাহিনী নিয়ে। এই পৃথিবী যেনো একটা ধর্ষণের রাজ্য হয়ে গেছে। এই অবস্থা থেকে যে কিভাবে আমরা মুক্তি পাবো সেটা হয়তো আমাদের জানা আছে কিছু কেউই এগিয়ে আসতে চায় না

সবাই ভয় পায় কারন যারা ধর্ষণ করে তারা অনেক শক্তিশালী। কিন্তু কারো অসৎ শক্তি কখনোই স্থায়ী হয় না এই দুনিয়াতে। অবশ্যই এমন একটা দিন আসবে যেদিন সব খারাপ কাজের জন্য মানুষকে জবার দিতে হবে আর অবশ্যই দুনিয়াতে কিছু ভালো লোক আসবে যারা এই দুনিয়াকে রক্ষা করবে সব শয়তানের হাত থেকে।

অধিকাংশ গনধর্ষণের কারন হচ্ছে যুদ্ধ। যুদ্ধ কখনো মানুষের ভালোর জন্য নয়, যুদ্ধ হয় শুধুমাত্র ক্ষমতার জন্য ক্ষমতার লোভে। একটা যুদ্ধ কি দেখাতে পারবেন যে যুদ্ধ হয়েছে মানুষের ভালোর জন্য?

bangla news যদি পেতে চান সবার আগে তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটে সব সময় ভিজিট করুন নতুন সব খবরের আপডেট সবার আগে পাবার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *