ভালোবাসা দিবস

ভালোবাসা দিবস

আমরা সবাই ভালোবাসা দিবস পালন করি কিন্তু আমরা অনেকেই কিন্তু জানি না কখন কিভাবে আর কি জন্য শুরু হয়েছিলো ভালোবাসা দিবস। তাই আজকে আমরা জানবো ভালোবাসা দিবসের ইতিহাস আর জানবো কি এমন ঘটেছিলো ১৪ ফেব্রুয়ারি যার জন্য এই দিনটিকে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করা হয়। চলুন তাহলে জেনে নেই সেই ঘটনার বিস্তারিত।

ভালোবাসা দিবস

ভালোবাসা দিবস
ভালোবাসা দিবস

বহু বছর আগে প্রায় ২৬৯ সালের সময় ইতালির রোমে একজন খৃষ্টান পাদ্রী ছিলেন যার নাম ছিলো সেন্ট ভ্যালেইটাইন’স আর তিনি ছিলেন সেই সময়ের একজন চিকিৎসক ও। কিন্তু তিনি খৃষ্টান ধর্ম প্রচার করতেন।

তখনকার রোমান রাজা দ্বিতীয় ক্রাডিয়াসের মোটেও পছন্দ হয়নি তার খৃষ্টান ধর্ম প্রচার তাই তাকে বন্দী করেন ক্রাডিয়াস। তারপর থেকে তিনি কারাগারে থাকেন বন্দী হয়ে।

কিন্তু ঐ কারাগারের দায়িত্বে থাকা একজন কারারক্ষীর মেয়ে ছিলো দৃষ্টহীন আর সেই মেয়েকে চিকিৎসা করে সুস্থ করে তোলেন সেন্ট ভ্যালেইটাইন’স।

কারারক্ষীর মেয়েকে সুস্থ করে তোলার খবরটা ছড়িয়ে পরে চারিদিকে। অনেক সুনাম অর্জন করে সেন্ট ভ্যালেইটাইন’স আর রোমের অনেক জনপ্রিয় একজন লোক হয়ে যান।

এই জনপ্রিয়তার কথা যখন রাজার কানে যায় তখন রাজা রাগে ঈর্ষান্বিত হয়ে সেন্ট ভ্যালেইটাইন’স কে মৃত্যুদন্ড ঘোষণা করেন আর তার মৃত্যুদন্ড যে দিন হয়েছিলো সেই দিনটি ছিলো ১৪ ফেব্রুয়ারি।

এরপর ৪৯৬ সালে পোপ সেন্ট জেলাসিউও ১ম জুলিয়াস সেন্ট ভ্যালেইটাইন’স এর ঘটনা স্মরণ রাখার জন্য ১৪ ফেব্রুয়ারিকে ভ্যালেন্টাইন ডে হিসেবে ঘোষণা করেন যেটাকে আমরা এখন ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করে থাকি।

এটাই ছিলো ভালোবাসা দিবসের ইতিহাস যা আমাদের অজানা ছিলো। আশা করি এখন সবাই ভালোবাসা দিবস পালনের সঠিক ঘটনা সম্পর্কে জানেন।

আসলে ভালোবাসা নিয়ে কোনো ঘটনা ঘটেনি ১৪ ফেব্রুয়ারিতে কিন্তু কেনো মানুষ এটাকে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করে সেটা সবার অজানা।

অনেকে মনে করেন রোমিও জুলিয়েট নিয়ে কোনো বিশেষ ঘটনার কারনে বা কোনো প্রেমিক প্রেমিকার কোনো বিশেষ ঘটনার কারনে এই দিন মানুষ পালন করে তবে এটা সবার ভুল ধারনা কারন ভালোবাসা নিয়ে কিছুই ঘটেনি সে দিন আর ভ্যালেইটাইন’স একজন খৃষ্টান পাদ্রীর নাম।

আসলে খৃষ্টান ধর্মে তাদের ধর্ম প্রচারক বা তাদের ধর্মে অবদান আছে এমন কারো সাথে কোনো ঘটনা ঘটলে সেটাকে মনে রাখার জন্য অনেক দিবস পালন করে থাকে। যেমন ২৩ এপ্রিল সেন্ট জজ ডে, ১ নভেম্বর আল সেইন্টম ডে, এমন আরো অনেক দিবস আছে।

শুভ ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে আমাদের সব আয়োজন দেখেতে এখনই ভিজিট করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *