দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প

দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প

দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প নিয়ে আজকে আপনাদের সামনে চলে এসেছি। আজকের গল্পটা কিন্তু বেশ রোমান্টিক গল্প যেটা হচ্ছে অধিকাংশ এরেন্জ ম্যারেজের গল্প আর স্বামী স্ত্রীর বাসর রাতের গল্প, প্রথম কোনো অচেনা মানুষের সাথে রাত কাটানোর গল্প। চলুন তাহলে শুরু করি আজকের দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প যেখানে বউ দজ্জাল হলেও ভালোবাসতে জানে।

দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প

দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প
দজ্জাল বউয়ের ভালোবাসার গল্প

আংটি টা পছন্দ হবে তো ফাহিমার?? আচ্ছা আংটি দিব নাকি নুপূর?? নাক চুড়ি?? কোনটা ভালো লাগবে?? কতোকিছুই না কিনেছে সাকিব ফাহিমার জন্য। ভাবতে ভাবতে ঘরে ঢুকলো সাকিব।

ঢুকেই থমকে গেল সাকিব। ভেবেছিল লাল বেনারসি পরা লাল টুকটুকে একটা মেয়ে বউ সেজে বসে থাকবে যেমনটা ফিল্মে থাকে। কিন্তু এখানে তো বউ ঘুমাচ্ছে!! একটু কি বেশী দেরী করে ফেল্লাম ভাবতে ভাবতেই ফাহিমা বলে উঠলো

ফাহিমা : এতক্ষণে আসার সময় হলো আপনার?? আমি তো ভেবেছিলাম আসবেন ই না।
সাকিব :আসবো না কেন??
ফাহিমা : সেটা আমি কি করে বলবো!
সাকিব :তা ও ঠিক।
ফাহিমা : আচ্ছা আপনি একা এসেছেন??

সাকিব : (অবাক হয়ে) হ্যাঁ। কেন?? পাড়াপড়শীদের কেও কি আনতে হয়??
ফাহিমা :পাড়াপড়শীদের আনবেন কোন দুক্ষে! আমি জিজ্ঞেস করলাম কোন গিফট আনেননি আমার জন্য???
সাকিব : মনে মনে ভাবলো কি গিফট পাগলা রে বাবা!!
ফাহিমা :কি হলো? কি ভাবেন??কি কিপটা আপনি! বিয়ের রাতে বউকে গিফট করতে হয় জানেন না নাকি??

সাকিব :জি ম্যাডাম জানি। এনেছি ও।
ফাহিমা :লাফ দিয়ে বলে কই?? দেখি??? কি এনেছেন??
সাকিব :এই যে বলে আংটি টা বের করলো।
ফাহিমা :ছো মেরে আংটি টা নিয়ে সাকিব কে বললো যান এইবার বিছানা করেন আমি আংটি টা দেখি।

সাকিব : এ এ এ!! আমি মশারি টানাবো!!
ফাহিমা :না তো কি আমি টানাবো??
সাকিব :মুখ ভার করে ভাবতে লাগলো কি মেয়ে রে বাবা!! কোন লজ্জা ও পায় না!!

মশারি টানিয়ে ফাহিমার দিকে তাকাতেই ফাহিমা বললো

ফাহিমা : যান এইবার লাইট অফ করেন।
সাকিব :কি!
ফাহিমা :উফফ!! আপনি এত কি কি করেন কেন??
সাকিব :আচ্ছা করছি।

বাতি নিভিয়ে বিছানায় শুয়ে শুয়ে সাকিব ভাবতে লাগলো কি মেয়ের সাথে বিয়ে দিলে মা!! এই মেয়ে তো আমাকে এক রাতেই জ্বালিয়ে তেজপাতা করে দিচ্ছে!! আগে জানলে লাভ ম্যারিজ করতাম। এমন সময় কেউ যেন সাকিবের বুকে মাথা রাখলো! সাকিব আতকে উঠে বললো কে??

ফাহিমা : তোমার যম।
সাকিব : মানে?
ফাহিমা : এহহ ঢং।! জানে না কে!!
সাকিব :আমার বুকের উপরে কি করো??
ফাহিমা :আর কই যাবো?? এটাই তো আমার বিছানা। আমার বালিশ।
সাকিব : (লজ্জা পেয়ে) সত্তিই?

ফাহিমা :হমমমম। আচ্ছা শুধু আংটি দিলেই চলবে?? পরিয়ে দিবে না?
সাকিব :এই অন্ধকারে!
ফাহিমা :না তো কি? আলো জ্বালিয়ে?? যেন আমি লজ্জা পাই??
সাকিব : ইসস! লজ্জাবতী লাজুকতা বউ আমার।
ফাহিমা :এই কি বললা তুমি!! হুহ যাও কথা নাই তোমার সাথে।
সাকিব : আচ্ছা। (এটা বলেই ফাহিমা কে আংটি টা পরিয়ে দিয়ে বললো) I love you আমার দজ্জাল বউ।

ফাহিমা :রেগে বললো আমি দজ্জাল!!
সাকিব :না তো কি?? হ্যাঁ?? যা করলা আমার সাথে একটু আগে!!
ফাহিমা :ধুর আমি কিভাবে জানবো তোমার রুমে মশারি কিভাবে টানায়?? আর তাছাড়া সারাদিন বসে থেকে পা ব্যাথা হয়ে গিয়েছিল তাই শুয়ে পরেছিলাম। সরি …
সাকিব :ইট্স অকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *