কানামাছি বাংলা নাটক – Kanamachi Bangla Natok

কানামাছি বাংলা নাটক - Kanamachi Bangla Natok

কানামাছি বাংলা নাটক অনেক অসাধারন একটা গল্প নিয়ে বানানো হয়েছে। Kanamachi Bangla Natok এতো সুন্দর একটা মিষ্টি ভালোবাসার নাটক যেটাতে অভিনয় করেছে সাফা কবির আর তৌসিফ মাহবুব। চলুন তাহলে দেখি Tawsif Mahbub আর Safa Kabir এর Bangla Short Film যা আপনাকে শেখাবে ভালোবাসা কাকে বলে।

কানামাছি বাংলা নাটক – Kanamachi Bangla Natok

এই বাংলা নাটক শুরু হয়েছিলো বন্ধুদের মজা করা দিয়ে। কিন্তু এক সময় সেই মজাটা কিভাবে ভালোবাসায় পরিনত হয় সেটা নিজেও বুজতে পারেনি সাফা কবির। আস্তে আস্তে তার মনে জায়গা করে নেয় তৌসিফ মাহবুব।

আসলে হয়েছিলো কি সাফা কবির ও তাড় বন্ধুরা রাস্তায় মানুষের সাথে মজা করতো। কখনো তারা ভান করতো যে তারা দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে আর কখনো বা ভান করতো যে তারা অন্ধ। এভাবে তারা রাস্তায় মানুষকে বিরক্ত করতো।

একবার Safa Kabir অন্ধ হবার ভান করে আর সেটা দেখে তাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে Tawsif Mahbub কিন্তু Tawsif ঠিক ভাবে হাঁটতে পারতো না।

সাফা কবিরের মনে কেনো জেনো আনন্দ হলো না মজা করে। ওর বন্ধুরা যখন ওকে জিজ্ঞেস করলো কেনো হাসলো নে সে তখন সাফা কবির বলে ছিলো, থাক না, সব কিছু নিয়ে মজা করতে নেই।

এরপর আবার একদিন রাস্তায় দেখা হয়ে যার সাফা কবিরের সাথে তৌসিফ মাহবুবের কিন্তু কেনো জেনো সাফা আজকেও অন্ধ মেয়েদের মতো ভান করে রইলো। হয়তো সে চায়নি যে তৌসিফ জানুক যে সে তার সাথে মজা করেছিলো।

তৌসিফ সাফাকে এগিয়ে দিচ্ছিলো বাসার দিকে আর একা বের হওয়াটা খুব বিপদজনক সেটাই বলছিলো কারন তৌসিফ তো জানে যে সাফা অন্ধ।

Tawsif তার নিজের বেপারে বলছিলো যে সে ঠিক ভাবে হাঁটতে পারে না আর তার বাবা মারা যাবার আগে তার জন্য একটাই জিনিস রেখে গেছে সেটা হচ্ছে তার বাবার দেয়া সাইকেল। এটা দিয়েই সে পথ চলে কারন সে ভালো ভাবে হাঁটতে পারে না তাড় পায়ে সমস্যা। আর সে রাতে চাকরি করে নাইট গার্ডের আর দিনে পড়াশুনা করে।

Safa কে Tawsif বলছিলো যে তার একটা স্টিক থাকে ভালো হতো যেটা অন্ধ লোকেরা পথ চলতে ব্যবহার করে কিন্তু Safa গরিব মেয়ের ভান করে টাকার অভাব এর কথা বলে বলেছিলো পরের মাসে কিনবে স্টিক।

এরপর রাস্তা পার করে দিলো Tawsif আর সে সময় Safa র হাতটা ধরেছিলো। Safa মনে মনে কিছু একটা অনুভব করলো, হয়তো সেটা ছিলো ভালোবাসার অনুভুতি।

এরপর তারা ঘুরতে যেতো বিভিন্ন জায়গায় আর অনেক সুন্দর কিছু মুহূর্ত ছিলো তাদের আর কিছু মজার সময় ও ছিলো।

এসব কিছুর মাঝে Safa অনুভব করে যে সে Tawsif কে ভালোবাসে আর Tawsif তাকে প্রানের চেয়ে বেশি ভালোবাসে আর এটাই তো চায় একটা মেয়ে।

সামনে সাফা কবিরের জন্মদিন তাই তৌসিফ মাহবুবকে সে বলে তাড় জন্য একটা চিঠি লিখতে কারন সাফা কবিরের ইচ্ছা যে সে তাকে কেউ চিঠি দিবে। কিন্তু কখনো কেউ তাকে চিঠি লিখেনি।

কানামাছি বাংলা নাটক - Kanamachi Bangla Natok
কানামাছি বাংলা নাটক – Kanamachi Bangla Natok

চিঠি পড়বে কি করে সেটা যখন তৌসিফ জিজ্ঞেস করলো তখন সাফা বলেছিলো যে তৌসিফই পড়ে শুনাবে কারন তৌসিফ এখনো জানে না যে সাফা আসলে অন্ধ না।

এসে গেলো সাফা কবিরের জন্মদিন, সে আজকে অনেক সুন্দর করে সেজেছে তৌসিফের জন্য। কিন্তু পথে তার বন্ধুদের সাথে দেখা আর সে তার বন্ধুদের হয়তো সবটা বলেছে বা এমনিতেই মজা করছিলো আবার রাস্তায় অন্ধ মেয়ে সেজে।

এমন সময় তৌসিফ এসে দেখে যে সাফা রাস্তার মাঝে একা পথ চলতে পারছে না, তাই সাফাকে বাঁচাতে সে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তার মাঝে তাড়াতাড়ি যাবার সময় একটা বাস এসে…………..

সাফা পাগলের মতো ছুটে আসে রাস্তায় পরে থাকা তৌসিফের সামনে আর দেখে তৌসিফের নাক মুখ দিয়ে রক্ত ঝরছে।

তৌসিফের হাতে একটা গিফট আর একটা চিঠি। চিঠিতে লেখা, তার সাইকেলটা সে বিক্রি করে সাফার জন্য স্টিক কিনেছে জেনো তার পথ চলতে অসুবিধা না হয় তাও নিজের শেষ সম্পদ আর বাবার স্মৃতি মাখানো সাইকেলটা বিক্রি করে।

তার আর কোনো উপায় ছিলো না কারন তার চাকরিটা হঠাত চলে গিয়েছিলো। তাই সে সাইকেল বিক্রি করে অন্ধদের পথ চলার স্টিক কিনেছে যেনো অন্ধ সাফার পথ চলতে সমস্যা না হয়।

সাফা চিৎকার করে কাঁদছিলো যে মজা করতে গেয়ে সে তার জীবনের সবচেয়ে দামি জিনিস তার ভালোবাসার মানুষটাকে হারিয়ে ফেলছে।

কানামাছি বাংলা নাটক আমাদের এটাই শিক্ষা দেয় যে মজার একটা সীমা আছে যেটা অতিক্রম করা ঠিক না, করলেই হারাতে হয় আপন মানুষগুলো। আর একটা শিক্ষাও দেয় যে এখনকার বন্ধু বান্ধবীরা যেটাকে মজা মনে করে সেটা আসলে কি মজা নাকি অন্য কিছু সেটা আগে ভেবে তারপর তাদের সাথে সেই কাজে যোগ দেয়া উচিত।

মানুষকে নিয়ে মজা করা ঠিক না কখনো।

এভাবেই এই নাটকের কষ্টের ভালোবাসার গল্প শেষ হলো। শিক্ষনীয় একটা valobasar golpo ছিলো এটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *