ঈদ মোবারক

ঈদ মোবারক

মুসলমানরা ঈদের দিন আসলেই ঈদ মোবারক জানানোর জন্য প্রস্তুত হতে থাকে। অনেকে অনেক ভাবে ঈদের শুভেচ্ছা জানায়। কেউ বা সামনে এসে কোলাকুলি করে আর অধিকাংশই মেসেজ বা এসএমএস পাঠিয়ে বা স্ট্যাটাস দিয়ে ঈদ মোবারক লেখা ছবি দিয়ে শুভেচ্ছা জানায়। আমাদের ওয়েবসাইটে পাচ্ছেন দারুণ সব ঈদের পিকচার যা সবার ভালো লাগবে বলে আশা করছি।

ঈদ মোবারক

“Bou, ami basay aschi. Tomar jonno ki anbo? Sohore tomar kotha khub mone pore. Ki korbo bolo, ektu ay-rojgar korar jonno tomader chere eka eka sohore thaki. Basar sobai kemon ache? Ami khub tara tari basay aschi sobar jonno notun jama niye. Amar jonno chinta koro na, ami valo achi. Tomra sobai sabdahne theko, kichu dorkar hole amake janiyo kinto.”

বউ, আমি বাসায় আসছি। তোমার জন্য কি আনবো? শহরে তোমার কথা খুব মনে পরে। কি করবো বলো, একটু আয় রোজগার করার জন্য তোমাদের ছেড়ে একা একা শহরে থাকি। বাসার সবাই কেমন আছে? আমি খুব তাড়াতাড়ি বাসায় ফিরে আসছি সবার জন্য নতুন জামা নিয়ে। আমার জন্য চিন্তা করো না, আমি ভালো আছি। তোমরা সবাই সাবধানে থেকো, কিছু দরকার হলে আমাকে জানিয়ো কিন্তু।

 

“Ebar Eid ta ektu onno rokom. Basay ektu somossha hocche. Ager bochor gulote toh Roja shuru hobar agei Eid er notun jama kine feltam. Abar rojar moddhe o kintam. Proti bar ki notun jama diye Eid korte hoy? Amar purano panjabi ta ekhon dekhte onek notun lagche. Ebar ota porei Eid er namaj porbo. Abbu thakle hoytoh ajke puran panjabi ta pore Eid korte hoto na.”

এবার ঈদ টা একটু অন্য রকম। বাসায় একটু সমস্যা হচ্ছে। আগের বছর গুলোতে তো রোজা শুরু হবার আগেই ঈদের নতুন জামা কিনে ফেলতাম। আবার রোজার মধ্যে ও কিনতাম। প্রতিবার কি নতুন জামা দিয়ে ঈদ করতে হয়? আমার পুরানো পাঞ্জাবি টা এখনো দেখতে অনেক নতুন লাগছে। এবার ঐটা পরেই ঈদের নামাজ পড়বো। আব্বু থাকলে হয়তো আজকে পুরানো পাঞ্জাবী টা পরে ঈদ করতে হতো না।

 

“Ammu ebar Eid e ki ki ranna korbe? Ami joto din basay thakbo toto din kintu tomar hater ranna kora khbar e amar lagbe. Baire jodi ghurte o jai, ta o basay ese khabo. Abbu Eid er bajar ki kore feleche? Age toh ami o jtam abbu r sathe Eid er bajar korte. Ami aschi ammu, ami basay aschi tomar kache.”

আম্মু এবার ঈদে কি কি রান্না করবে? আমি যতো দিন বাসায় থাকবো ততো দিন কিন্তু তোমার হাতের রান্না করা খাবারই আমার লাগবে। বাইরে যদি ঘুরতে ও যাই, তা ও বাসায় এসে খাবো। আব্বু ঈদের বাজার কড়ে ফেলেছে? আগে তো আমি ও যেতাম আব্বুর সাথে ঈদের বাজার করতে। আমি আসছি আম্মু, আমি বাসায় আসছি তোমার কাছে।

 

“Apu tumi ebar Eid ki shudhur bari korbe? Amader barite Eid korbe na? Biyer pore toh temon ekta ashle o na berate ei basay. Ammu na amake onek boke majhe majhe, ekhon ar keu e amake bachate ashe na. Tumi kintu Eid er somoy aisho apu. Tomar hater ranna onek miss kori.”

আপু তুমি এবার ঈদ কি শশুর বাড়ি করবে। আমাদের বাড়িতে ঈদ করবে না? বিয়ের পরে তো তেমন একটা আসলেও না বেড়াতে এই বাসায়। আম্মু না আমাকে অনেক বকে মাঝে মাঝে, এখন আর কেউ ই আমাকে বাচাতে আসে না। তুমি কিন্তু ঈদের সময় আইসো আপু। তোমার হাতের রান্না অনেক miss করি।

 

ঈদুল ফিতর আসলে অবশ্যই সবাই সব গুলো রোজা রাখার চেষ্টা করবেন। আর ঈদুল আযহা তে কখনোই কোরবানির পশু কাউকে দেখানোর জন্য কিনবেন না। আপনার কোরবানী, আপনার যাকাত, আপনার নামাজ, আপনার প্রতিটা কাজ হতে হবে শুধুমাত্র আল্লাহকে খুশি করার জন্য।

ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেয়ার মজাই আলাদা। আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে যেই সুন্দর ঈদের শুভেচ্ছা পিকচার দিয়েছি এতে করে আশা করি আপনারা সবাই এসএমএস বা মেসেজ ছবি পাঠিয়ে খুব ভালো ভাবেই ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে পারবেন।

এছাড়া স্ট্যাটাস এর সাথে আমাদের ওয়েবসাইটের দারুন সব ঈদের পিকচার দেখলে তো যে কারোই মন ভরে যাবে। আর আমরা তো একটা দুইটা ছবি দিয়েই বসে থাকিনি। একটার পর একটা পিকচার আপলোড করেই যাচ্ছি।

এমনকি আমাদের যদি মনেহয় যে কোনো পিকচারের মান আরো ভালো করা সম্ভব তাহলে আমরা সেই পিকচার ওয়েবসাইট থেকে ডিলিট করে দিয়ে আরো ভালো মানের পিকচার আপলোড করে থাকি যেনো আপনারা সব সময় নতুন আর সবচেয়ে সেরা Bangla Eid Mubarak Images পান।

আমরা কখনো আমাদের লাভের কথা চিন্তা করি না। কারন Eid Mubarak Bangla Language Picture বানিয়ে আমাদের তেমন একটা লাভ হয় না। কারন বাংলা যে কোনো বিষয়ের জন্য খুব কম আয় হয়। তাই সাধারণত কেউ সখ ছাড়া Eid Mubarak Wish Bangla Language এ বানায় না।

তবে আমরা যেভাবে বাংলাদেশ ও বাংলা ভাষাকে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি তাতে করে আশা করি কয়েক বছরের মধ্যে বাংলা ঈদ কার্ড এর অভাব থাকবে না ইন্টারনেটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *